৩০ মে, ২০২১ , রবিবার

কবিতা
রূপক চট্টোপাধ্যায়
ত্রয়ী

স্বপ্নের নৈঋত কোনে
হিমাঙ্ক ছুঁয়েছে হৃদয়।
আজ তবে একাকি প্রবাহ বয়ে যাক
দু ‘কুল ছাপিয়ে!
এই শোক গাঁথা অনাদরে
পড়ে, চলে যাবো ভাবি। তখন দেখি
নবান্ন লাগানো শরীরে
ধানে ধানে পূর্ণ অহংকার!

চলে যাওয়া হয় নাই, তাই
নৌকা জন্ম স্নান করে ঘাটের সমীপে

সমাধান নেই,
মিলন হবে কত দিনে.. গাইতে গাইতে
যে বাউল মিলিয়ে যায় সমুদ্র নীল জোৎস্নায় .
তার ফিরে না পাওয়া
গাবগুবি বিকেল, আগুন পোষাক,
গাঁজার মৌতাত, সব অসমীকরণ হয়ে
রয়ে গেছে এই একমাঠ
খাতায় খাতায়….

জল দাও।
চুমুকের আগে নদী দাও,
এবার আলিঙ্গনের তুঙ্গে
তোমার মৃতদেহ
আমার নামে লিখে দাও….!

সাম্প্রতিক পোষ্ট
বর্ষা , উমামাসি আর প্রেমের গপ্পো- হারিয়ে যাওয়া গানের খাতা- যশোধরা রায়চৌধুরী

জল ঠেলতে ঠেলতে দিন কেটে যায় তবু… রোমান্স মরে গেলেও, ওই কাদা জল
ঘেঁটেই চলি তারপর। বাজারে দোকানে যাওয়া… ফিরে আসা হাঁটুজলে। এসে পায়ে
দেখি কার চিঠি লেপটে আছে।

Read More »