সাপ্তাহিক সংস্করণ, ২৫ এপ্রিল, ২০২১, রবিবার

সামসি কলেজ নাট্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের নাট্যমিলন সভা
গোপীনাথ মণ্ডল
গোপীনাথ মণ্ডল

বিশ্ব নাট্যদিবস সর্বপ্রথম পালিত হয় আন্তর্জাতিক থিয়েটার ইনস্টিটিউট কর্তৃক ১৯৬১ সালের ২৭ মার্চ।  এই দিনটি উদযাপন করতে বিভিন্ন জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক মঞ্চনাটক অনুষ্ঠিত হয়।
শোষণের বিরুদ্ধে সংগ্রাম, জাতিভেদ, যুদ্ধ ও লুণ্ঠনে জর্জরিত এবং অমলিন বিনোদনে জড়িয়ে থাকা মানুষের কথাকে ছড়িয়ে দিতে, সব ধরনের অনুকূল-প্রতিকূল পরিস্থিতিকে সঙ্গে নিয়ে এদিন নাট্যকর্মী ও নাট্যপ্রেমীদের একত্রিত করে আন্তর্জাতিক থিয়েটার ইনস্টিটিউট। সকলে একত্রিত হয়ে শান্তি বার্তাবহ মনোভাব বিনিময় করে।  এবং সৌভ্রাতৃত্ব বোধে নিজেদের সমৃদ্ধ করার তাগিদে বিশ্ব নাট্য দিবসের আয়োজন হয় আন্তর্জাতিক আঙিনায়।

সামসি কলেজ নাট্যপ্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উদ্যোগে আয়োজিত হয়, বিশ্ব নাট্যদিবস ২০২১ উপলক্ষে ‘নাট্যমিলন সভা’।  ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতির বিধিনিষেধ মাথায় রেখে সামসি কলেজ নাট্যপ্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কর্ণধার তথা সামসি কলেজের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মনোজ ভোজের বিশেষ উদ্যোগে এবং প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রত্যেক সদস্যের প্রবল সাড়া পেয়ে সামসি কলেজের ‘রক্তকরবী’ কক্ষে অনুষ্ঠিত হয় নাট্যমিলন সভা।  কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, অধ্যাপক-অধ্যাপিকা, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের নাট্যকর্মী এবং বাইরের বেশকিছু নাট্যপ্রেমীর সমাগম ঘটে এই মিলন সভায়।  প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত হন কলিগ্রাম চেনামুখ নাট্য সংস্থার পরিচালক কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানের সূচনা লগ্নে সকলের সমর্থনে সভাপতি পদে বরণ করে নেওয়া হয় সামসি কলেজের ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মহ. আব্দুল ওয়াহাবকে।  তারপর সভাপতি মহাশয়, প্রধান বক্তা কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তী এবং মঞ্চে উপস্থিত সকলের সহযোগে প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা।  একদিকে বসন্ত এবং অন্যদিকে বিশ্ব নাট্যদিবস এই দুইয়ের মিলনকালে সামসি কলেজ নাট্যপ্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অন্যতম সদস্য পূর্বা সরকারের কন্ঠে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘মায়ার খেলা’-র ‘ আহা আজি এ বসন্তে’ এমন একটি উদ্বোধনী সংগীত রক্তকরবী কক্ষে এই মিলন সভার আবেগকে আরও তীব্রতর করে তোলে।

নাট্যকার মনোজ ভোজের স্বাগত ভাষণে ব্যাখ্যাত হয় বিশ্ব নাট্য দিবস পালনের মূল কারণ।  তিনি বলেন, “নাটকের মানুষজনকে একত্রিত করে মিলনের মধ্য দিয়ে একটি শান্তির বাণী, একটি নতুন পথের আলো আমরা আবিষ্কার করতে চাই।  তাছাড়া ছাত্রছাত্রীরা এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে থিয়েটারের বিশ্ববোধে পৌঁছতে পারবে বলে আমরা মনে করি”।  বিশিষ্ট নাট্যসমালোচক দীপঙ্কর রক্ষিত তাঁর বক্তব্যে জানান, “নাট্যকাররা যথার্থ নাট্যকার হয়ে উঠতে পারে যদি তাদের মধ্যে শাসক বিরোধী মনোভাব থাকে অর্থাৎ যদি কোন নাট্যকার শাসকের শাসকের তাবেদারি করেন তিনি কখনোই ভালো নাটক লিখতে পারেন না”।  তিনি আরও উচ্চ কন্ঠে দাবি করেন ‘ধর্মীয় মৌলবাদ’, ‘বর্তমান সমাজের রাজনৈতিক অন্তঃসারশূন্যতা’ কে নাটকের মাধ্যমে তুলে ধরার জন্য।  অনুষ্ঠানের মুখ্য প্রবক্তা কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তী মহাশয় “নাট্য: প্রয়োগভাবনা” প্রসঙ্গে কলকাতা এবং গ্রাম-মফস্বলের নাট্যপ্রয়োগের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন।  কলকাতা এবং প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের থিয়েটার ভাবনা নিয়ে তুল্যমূল্য আলোচনা সকলকে সমৃদ্ধ করে তোলে।

নাট্য মিলন সভার মূল কথাই হল মনের ভাবের বহিঃপ্রকাশ ও অন্য নাট্যকর্মীর সঙ্গে সমন্বয়। সামসি কলেজ নাট্যপ্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সদস্য তথা কলেজের প্রধান করণিক গৌতমকুমার দাস জানান কীভাবে তিনি থিয়েটারে এসেছেন, সঙ্গেসঙ্গে নাটক ভালোলাগা এবং নাটকের মাধ্যমে নিজের চরিত্র গঠনের কথাও তি বলেন। ইন্তাজুল হক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অন্যতম সদস্য এবং কলেজের প্রাক্তন ছাত্র।  তিনিও জানান, সামসি কলেজ নাট্যপ্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সাথে সংযুক্ত হওয়ার অভিজ্ঞতার কথা। মহ: আব্দুল ওয়াহাব সভাপতির ভাষণে বিশ্ব নাট্যের পরিচয়ে গ্রীক, ইংরেজি ইত্যাদি নাটকের বিস্তারিত আলোচনা করেন ।  এবং গ্রিক ইংরেজি নাটকের সাথে বাংলা নাটকের সমন্বয় সাধন করেন ।  অধ্যাপক দেবব্রত সিনহার সঞ্চালনায় গোটা অনুষ্ঠানে বক্তা-শ্রোতা মধ্যে বিভিন্ন বক্তব্যের সমন্বয় ঘটে। তাঁর দক্ষতায় সভার বক্তা-শ্রোতার প্রশ্নোত্তরপর্বটি প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে।

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
সাম্প্রতিক পোষ্ট
সাড়ে চুয়াত্তরের কেদাররূপী ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়ের “মাসিমা মালপোয়া খামু” র অনবদ্য হ্যাংলামো আমাদের ভেতরে স্বতঃজাগরূক। ওটা সহজেই মাসিমা আইচকিরিম খামু হতে পারে… সারাজীবনে কতবার যে চেয়েছি সেটা।

হারিয়ে যাওয়া ফেরিওয়ালারা- যশোধরা রায়চৌধুরী

Read More »
কাজী নজরুল ইসলাম ও একটি নির্বাচনী লড়াই। নির্বাচনের প্রাক্কালে এক শ্রেণির মুন্সি-মৌলভীরা কবিকে কাফের অপবাদ দিতে শুরু করল। ভোটের লড়াইয়ে মরিয়া কবি তখন এর জবাবে ইসলাম ধর্ম ও ঐতিহ্যকে ভিত্তি করে প্রচুর গান, গজল ও কবিতা রচনা শুরু করলেও তেমন সুবিধা হল না।

৩০ মে, ২০২১ , রবিবার কবি কাজী নজরুল ইসলাম ও

Read More »