সুমন মল্লিক 

সুভাষ 

(সুভান  শোভনহৃদয়েষু)

চুরি যাওয়া সন্ধ্যার ভেতর মায়াজল আর ব্যথার

অনুশীলনে মেতে ওঠে সুভাষ ৷ মঙ্গলচিহ্ন আঁকা

সোহাগসাঁকোতে ছুঁড়ে ফেলে জমানো অভিমান ৷

সুভাষের এক হাতে আগুন, আরেক হাতে বৃষ্টি,

আর মাঝখানে চালচুলোহীন কিছু অলীক স্বপ্নের

সংগ্রহশালায় প্রেয়সীর অনিন্দ্যসুন্দর অভিশাপ ৷

সারাদিন পাথর ভাঙে সুভাষ আর ভাঙা পাথরেই

রাত জেগে প্রেমে ভেজা পতনের ভাস্কর্য গড়ে ৷

সুভাষ কখনও বাইপাসে বোহেমিয়ান, কখনও

মাল্টিপ্লেক্সে যান্ত্রিক, আবার কখনও সাহুর পারে

অপরিচিত নতুন লালন ফকির – সবেতেই

চুরি যাওয়া সন্ধেগুলো খোঁজে সুভাষ, যার ভেতর

দশটা ঋতুচক্রের দমবন্ধ কোলাজ, যার ভেতর

ওর চেতনালাভ ও চেতনা হারাবার বিরল বেদনা ৷

আমি এভাবেই সুভাষকে দেখি, চিনে নিই পুরোটা ৷

রাত গভীর হলে আমার পাশে এসে বসে সুভাষ –

আমরা কবিতা লিখতে লিখতে একসাথে ডুবে যাই

ঘুমে কিংবা ঘুম ঘুম মরণে  ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *