শ্যমল সরকার

সেই-ই প্রথম

আমি তখন স্কুলে পড়ি, ক্লাস এইট ৷ বড়ো ঘুমে পটু ৷ সেদিনও তেমনি ঘুমোচ্ছি ৷ ছোটপিসির বিয়ে গেছে আগের রাত্তিরে ৷ বেশ দেরি করে শুয়েছি ৷ লোকজনের গিজগিজে ভিড় ৷ বিছানার এক কোনে চলছে আমার জম্পেস ঘুম ৷ লেপের তলায় গলা অবধি সারা শরীর ৷ অনেকক্ষণ থেকে টুকরো-টাকরা কথাবার্তা আমার কানের দরজায় এসে ফিরে ফিরে যাচ্ছে ৷ অনেকটা বেলা হলেও আমার অর্ধেক চেতনা জুড়ে ঘুম তখনও ৷ হঠাৎ আমার ওষ্ঠে অনুভব করলাম একটা শীতলতর গভীর ওষ্ঠস্পর্শ ৷ নাকে এল অপূর্ব সুঘ্রাণ । তারপরই অচেনা স্বরের মেয়েলী হাসি ৷ ভেতরটা যেন ঝাঁকুনি দিয়ে উঠল আধোঘুমেও ৷ চোখ খুলে গেল আমার ৷ ঘরে কেও নেই ৷ সেই মনোরম হাসির এক খণ্ড ফেলে রেখে ঘননীল ফ্রকপড়া এক কিশোরীকে দৌড়ে বেড়িয়ে যেতে দেখলাম কেবল ৷

ঘোর কাটিয়ে ঝটতি বাইরে  এলাম ৷ বাইরের  উঠোন ভরে গেছে মিষ্টি মাঘী রোদ্দুর আর বিয়ে বাড়ীর ব্যস্ততায় ৷ উপরের মেঘমুক্ত আকাশ ছাড়া কোথাওআর এতটুকু নীলের ছিঁটেফোঁটাও নেই ৷

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সাহিত্যিক বিভাস রায়চৌধুরীর সাক্ষাৎকার

X